Home » আইন পড়াশুনা » কেন আইন ডিগ্রিধারী সবাই আইনজীবী?

কেন আইন ডিগ্রিধারী সবাই আইনজীবী?


0

আইনী ডিগ্রি নেওয়ার পর সকলেই Advocate (উকিল)হিসাবে নয় কিন্তু আইনজীবী(Lawyer) হিসেবে মর্যাদা পাব কেন পাবে তা ব্যাখ্যা করা হলো।

আইনগত আলোচনা
……..……………………
Lawyer (আইনজীবী) ঃ
……………..…………………

“A person who practices or studies law is a lawyer ”

Practices :
The actual application or use of an idea, belief or method as opposed to theories about such application or use

Or
Repeated exercise in or performance of an activity or skill so as acquire or maintain proficiency in it.

Skills (Most Important) :

1.Teamwork;

2.Initiative and Independence ;

3.Creative Problem Solving ;

4.Written Communication Skill;

5.Vebal Communication Skill;

6.Work Under Pressure ;

7.Commercial Awarenesses ;

8.Understanding People;

9.Attention to Details ;

10.Research Skill.etc

Proficiency ঃ
……..……………..
“A high degree of competence or skill”

Degree :
.………….
An academic rank conferred by a College or University after examination or after completion of course of study or conferred as an honour on a distinguished person.

উপরোক্ত আলোচনা থেকে স্পষ্ট যে Lawyer ( আইনজীবী) হওয়ার জন্য কোনরূপকোন ভাবে তালিকা ভুক্ত হওয়ার প্রয়োজন নাই শুধু মাত্র আইনের ডিগ্রি অর্জন করলেই তাকে আইনজীবী বলা যায়।

তবে [Advocate (উকিল ) হতে হলে বাংলাদেশের প্রক্ষাপটে একজন lawyer( আইনজীবী)কে বার কাউন্সিলের সনদ নিতে হয়,নিচে এডভোকেট এর সংজ্ঞাগত ও আইনের বিশ্লেষণ করা হলোঃ

Advocate (উকিল)ঃ

Origin : Middle English
Old French : Avocat;
Latin:Advocatuse;

“A person who publicly support or recommend a particular cause or policy ”

“A person who puts a case on someone else behalf ”
# A professional pleader in a court of Justice.

Publicly means :

“As to be seen by other people ”

Recommend :
“বিশেষ ভাবে পরামর্শ দেওয়া”

The Bangladesh Legal Practitioner and Bar Council Order,1972

অনুচ্ছেদ ২(ক)”অ্যাডভোকেট মানে যিনি এ আদেশের আওতায় প্রনীত তালিকায় অন্তর্ভুক্ত ”

অনুচ্ছেদ ২(জ)”তালিকা মানে অ্যাডভোকেটগনের তালিকা যা বার কাউন্সিলের মাধ্যমে তৈরিকৃত এবং সংরক্ষিত ”

অনুচ্ছেদ ১০(ক)”বার কাউন্সিল অ্যাডভোকেট তালিকাতে কোন ব্যক্তিকে অ্যাডভোকেট হিসাবে অন্তর্ভুক্ত করে”

দেওয়ানী কার্যবিধি, ১৯০৮
এর ২(১৫) ধারা অনুযায়ী ” Advocate (উকিল) বলতে এমন ব্যক্তিকে বুঝায় যিনি অপরের পক্ষে আদালতে হাজির হওয়ার ও যুক্তিতর্ক পেশ করা অধিকারী”

তাহলে উপরের আইনজীবী (Lawyer)ও উকিল (Advocate) বিশ্লেষণে পরিস্কার যে একজন ব্যক্তি আইনে ডিগ্রি অর্জনের পরই আইনজীবী মর্যাদার আসীন হয়,তার পর বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী ৬ মাস পিউপিল হিসেবে একজন অ্যাডভোকেট এর প্রশিক্ষন নেওয়ার পর অ্যাডভোকেট হিসাবে তালিকা ভুক্ত হতে পারে।

আমাদেরকে আইনজীবী( Lawyer) বললে যে সকল বিজ্ঞরা কস্টপান তাদেরকে শেয়ার করে জানিয়ে দেওয়া উচিত বলে বোধ করছি।

বি.দ্র: কোন তথ্য থাকলে তা সরবরাহ করলে কৃতজ্ঞ থাকবো।

Book Reference
………………………..
1.Cambridge English Dictionary ;
2.Oxford English Dictionary ;
3.The Bangladesh Bar council Order and Rules 1972;
4.The Code of Civil procedure, 1908.

Bookmark(0)

Check Also

‘আমরা চাকরি চাই না, আইন পেশায় থাকার সনদ চাই।’

নিজস্ব প্রতিবেদক: ২০১৭ ও ২০২০ সালের এমসিকিউ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষানবিশ আইনজীবীরা সনদের দাবিতেগত ৩৪ দিন …

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.