মঙ্গলবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ || ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ || ৭ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

বিদেশী রায় বাতিল ঘোষণা করার দরখাস্ত!

বিদেশী রায় বাতিল ঘোষণা করার দরখাস্ত
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

বিদেশী রায় বাতিল ঘোষণা করার দরখাস্

                                        মোকামঃ রাজশাহীর প্রথম যুগ্ন জেলা জজ আদালত

                                               মানি ডিক্রীজারী মামলা নং ১২/২০২১

             জরিনা বেগম ………………… বাদী  বনাম  আব্দুল বাপ্পি ………………বিবাদী

বিষয়ঃ- দেওয়ানী কার্যবিধি আইনের ১৩ ধারার অধীন বিবাদী পক্ষের দরখাস্ত ।
বিনীত নিবেদন এই যে , ১।বাদিনী এবং বিবাদী দুজনেই এক সময় কাতারে বসবাস করতো।

২।বাদিনী ও বিবাদী বাংলাদেশে এসে বাংলাদেশী এবং ইসলামী শরা শরিয়ত মোতাবেক বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন এবং পুনরায় তারা উভয়েই কাতার গমন করেন।

৩।উপরোক্ত বিবাহে বাদিনীর দেন মোহরের পরিমাণ ছিল ৫,০০,০০০( পাঁচ লক্ষ টাকা।

৪।বয়সের পার্থক্য থাকার দরুন উক্ত বিবাহ সুখের হয় নাই।

৫। কাতারে থাকাবস্থায় বাদিনী ও বিবাদীর মধ্যে তালাক-ই-মুবাররাত তখা পারস্পরিক তালাক অনুষ্ঠিত হয় এবং বিবাদী বাদিনীকে তাহার প্রাপ্য দেনমোহর ও অন্যান্য পাওনা একযোগে প্রদান/পরিশোধ করে দেন ( অত্রসহ বাদিনী প্রদত্ত প্রাপ্তি স্বীকার পত্র সংযোজন করা রয়েছে।

৬। মনের ব্যাথায় দুঃখ কষ্টে বিবাদী তাহার প্রথমা মৃত স্ত্রীর পুত্র-কন্যাগণকে সংগে লইয়া বাংলাদেশে চলিয়া আসেন এবং বর্তমানে তুতীয় বারের মতো দার পরিগ্রহ করিয়া ঢাকা শহরে শান্তিপূর্ণ জীবনযাপন করছেন ।

৭। বিবাদী কাতার থেকে বাংলাদেশে চলে আসার পরও বাদিনী কাতারে থেকে যান এবং বাদিনী কাতারে ‘X’ কোর্টে বিবাদীর বিরুদ্ধে দেনমোহর ও অন্যান্য পাওনা আদায়ের দাবিতে মিথ্যা মামলা দায়ের করে, বিবাদীর উপর সমন জারী না করে সমন জারী হয়ে গেছে দেখিয়ে অত্র বিবাদীর বিরুদ্ধে একতলফা ডিক্রি হাছিল করেন এবং উক্ত ডিক্রিকে কার্যকরী করার জন্য অত্র মানি ডিক্রীজারী মামলা দায়ের করেন। উক্ত ডিক্রির মর্মেমতে বিবাদীকে বাদিনী বরাবরে বাংলাদেশী টাকায় ২৫,০০,০০০( পঁচিশ লক্ষ টাকা পরিশোধ করতে হবে।

৮।কাতারের ‘X’ কোর্ট  উক্ত বিষয়ে বিচার করার য়োগ্যতা সম্পন্ন আদালত নহে। উক্ত রায়টি মামলার গুনাগুনের উপর ভিত্তি করে প্রদান করা হয় নাই। দৃশ্যতই রায়টি আন্তর্জাতিক আইনের ভুল ব্যাখ্যার উপর প্রদান করা হয়েছে । মলাটির প্রতি প্রযোজ্য বাংলাদেশী আইনকে অস্বীকার করে রায়টি প্রদান করা হয়েছে।তঞ্চকতামুলে বাদিনী রায়টি হাসিল করেছেন। রায়ে বাংলাদেশে প্রচলিত মুসলিম আইন বিরোধী দাবীকে স্বীকৃতি প্রদান করা হয়েছে।

৯।উপরোক্ত কারণ ও অবস্থাধীনে ন্যায় বিচারের স্বার্থে অত্র মানি ডিক্রীজারী মামলার দরখাস্তটিকে প্রত্যাখ্যান করা একান্ত আবশ্যক, অন্যথায় বিবাদীর অপূরণীয় ক্ষতির কারণ হইবে এবং ন্যায় বিচার হতে চরমভাবে বঞ্চিত হবেন।

অতএব , প্রার্থনা, উপরোক্ত কারণ ও অবস্থাধীনে ন্যায় বিচারের স্বার্থে অত্র মানি ডিক্রিীজারী মামলার দরখাস্তটি প্রত্যাখ্যান করিয়া সুবিচার করিতে হুজুরের মর্জি হয়।

হলফনামা

আমি, আব্দুল বাপ্পি , পিতা: মৃত: খলিল মিয়া, বয়স ৩৪ বছর,থানা: গুলশান, জেলা: ঢাকা, ধর্ম: ইসলাম, পেশা: চাকুরি, জাতীয়তা: বাংলাদেশী এতদ্বারা শপথ পূর্বক ঘোষণা করিতেছি যেঃ-

১। আমি অত্র মোকদ্দমার বিবাদী এবং অত্র মোকদ্দমার যাবতীয় ঘটনা ও তথ্যাদি সম্পর্কে উত্তম রুপে জ্ঞাত আছি।

২।অত্র হলফনামা এবং ইহার সহিত সংযোজিত দরখাস্তে উল্লেখিত যাবতীয় বিবরণ আমার জ্ঞান ও বিশ্বাস মতে সত্য জানিয়া উহাতে অদ্য ১৩/০১/২০২১ ইং তারিখ বেলা ১১:০০ টার সময় অত্র আদালতের হলফনামা কমিশনার সাহেবের সম্মুখে হাজির হইয়া অত্র হলফনামা সহি সম্পাদন করিলাম।

হলফকারী
স্বাক্ষর, তাং

হলফকারী আমার ‍পরিচিত। তিনি আমার সম্মখে অত্র হলফনামায় তাহার নিজ নাম সহি করিয়াছেন।আমি তাহাহে অদ্য ১৩/০১/২০২১ ইং তারিখে বেলা ১১:০০ ঘটিকার সময় অত্র আদালতের হলফনামা কমিশনার সাহেবের সম্মুখে সনাক্ত করিলাম।

আইনজীবী
স্বাক্ষর, তাং

বিদেশী রায় বাতিল ঘোষণা করার দরখাস্ত
একই মামলার দ্বিতীয়বার বিচার বাতিল করার দরখাস্ত!

Jurisdiction of the Courts and Res Judicata

When foreign judgment not conclusive.

The Code of Civil Procedure, 1908 Section 13. A foreign judgment shall be conclusive as to any matter thereby directly adjudicated upon between the same parties or between parties under whom they or any of them claim litigating under the same title except-

(a) where it has not been pronounced by a Court of competent jurisdiction;
(b) where it has not been given on the merits of the case;
(c) where it appears on the face of the proceedings to be founded on an incorrect view of international law or a refusal to recognise the law of Bangladesh in cases in which such law is applicable;
(d) where the proceedings in which the judgment was obtained are opposed to natural justice;
(e) where it has been obtained by fraud;
(f) where it sustains a claim founded on a breach of any law in force in Bangladesh.

 

 

লেখকঃ ল ফর ন্যাশনস, ইমেইলঃ lawfornations.abm@gmail.com, মোবাইল: 01842459590.

লেখক পরিচিতি

Responses