শনিবার, ৩১শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ || ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ || ১৫ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি

বেনাপোলে ছোট ভাই গুলি করে মারল বড় ভাইকে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

যশোর প্রতিনিধি: বেনাপোলে ছোট ভাইয়ের গুলিতে বড় ভাই নিহত হয়েছে। বড় ভাই রাছেলকে গুলি করে হত্যা করেছে একাধিক মামলার আসামি কুখ্যাত সন্ত্রাসী ছোট ভাই আমজাদ। ঘটনাটি ঘটেছে বেনাপোল পোর্ট থানার কাগজপকুর গ্রামে। পরে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় আমজাদ হোসেন আটক করেছে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ।

আজ বুধবার (২৯ জুলাই) সকাল ১০ টার সময় হত্যার ঘটনা ঘটে কাগজপুকুর গ্রামে তাদের নিজ বাড়িতে। নিহত রাছেল হোসেন ও হত্যাকারী আমজাদ হোসেন কাগজপুকর গ্রামের ইদ্রিস আলী ইদুর ছেলে।

নিহতের চাচা আব্দুল কারিম বলেন, মঙ্গলবার রাতে আমজাদ নেশার জন্য তার ভাই রাছেলের কাছে ২০ হাজার টাকা দাবি করে। এ নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। বুধবার সকাল ১০ টার সময় আবারও আমজাদ রাছেলের কাছে টাকা দাবি করে। রাছেল টাকা দিতে অস্বীকার করলে আমজাদ তার গলায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে। পরে রাছেলকে বুরুজ বাগান হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

স্থানীয়রা জানান, বেনাপোল শার্শার কুখ্যাত সন্ত্রাসী একাধিক মাদক ও হত্যা মামলার আসামি আমিরুলের সেকেন্ড ইন কমান্ড ছিল এই আমজাদ হোসেন। আমিরুল নিহত হওয়ার পর থেকে সে কাগজপুকুর বেনাপোল শার্শা এলাকায় ছিনতাইসহ নানা ধরনের অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে। নিহত রাছেল হোসেন বেনাপোল বাজারে ডাবলু মার্কেটে কসমেটিকসের ব্যবসা করতেন।

বেনাপোল বিজিবি ক্যাম্পের সুবেদার আব্দুল ওহাব বলেন, স্থানীয় লোক মারফত ওই যুবককে আমরা আটক করি। স্থানীয় লোক জানায়, সে ভাইকে হত্যা করে ভারতে পালিয়ে যাচ্ছে। পরে তাকে আটক করে নাম জানতে চাইলে সে তার নাম আলী হোসেন বলে জানায়। এসময় তার নিকট একটি ছোট চাকু পাওয়া যায়। পরে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে গেছে।

বেনাপোল পোর্ট থানার ডিউটি অফিসার এএসআই রোকনুজ্জামান বলেন, ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় ওসি মামুম খানের নেতৃত্বে তাকে সীমান্তের সাদিপুর ইছামতি নদী থেকে আটক করা হয়। বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামুন খান আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন আসামি এখন থানা হাজতে আছে ।

লেখক পরিচিতি

Responses