সদ্যপ্রাপ্ত
সুন্দরবনের পশুর নদে জাহাজডুবির ঘটনায় তদন্ত কমিটি

সুন্দরবনের পশুর নদে জাহাজডুবির ঘটনায় তদন্ত কমিটি

এপ্রিল ১৬, ২০১৮

বাগেরহাট প্রতিনিধি: মোংলা বন্দর চ্যানেলের পশুর নদীর হারবাড়িয়ায় সুন্দরবনের ৭৭৫ মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে এমভি বিলাস নামে লাইটার জাহাজ ডু্বির ঘটনায় এক সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটি সুন্দরবনে কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে, তা খতিয়ে দেখবে।

রবিবার দুপুরে এই কমিটি গঠন করা হয়। এই তদন্ত কমিটির সদস্য হলেন সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মো. শাহিন কবির। তিনি ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. মাহমুদ হাসান জানান, এক সদস্যের তদন্ত কমিটির সদস্য চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মো. শাহিন কবিরকে কয়লা বোঝাই লাইটার জাহাজ ডুবিতে সুন্দরবনের কি পরিমাণ ক্ষয়খতি হবে তা নিরোপন করে দ্রুত রিপোর্ট দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। রোববার দুপুর থেকেই এ তদন্ত কমিটি সরেজমিনে তদন্ত কাজ শুরু করেছে।

এদিকে সুন্দরবনে কয়লা বোঝাই কার্গো জাহাজ ডুবির ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে সেভ দ্যা সুন্দরবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. শেখ ফরিদুল ইসলাম বলেন, পশুর নদীকে কয়লা বোঝাই জাহাজ ডুবিতে সুন্দরবনের গাছের শ্বাসমূলসহ জীববৈচিত্র্য ও জলজ-প্রাণির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হবে। কারণ ইটভাটা ও সিরামিক কারখানাগুলোতে ব্যবহারের জন্য ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানিকৃত কয়লা সাধারণত নিচুমানের হয়ে থাকে। এ কয়লায় সালফারের পরিমাণ অনেক-অনেক বেশি থাকায় এটি সুন্দরবনের পরিবেশকে মারাত্মকভাবে ক্ষতির কারণ হবে।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার দিনগত রাত ৩টার দিকে মংলা বন্দর থেকে প্রায় ৬০ নটিক্যাল মাইল দূরে হারবাড়িয়া ৫ নম্বর এ্যাংকরে ডুবোচরে আটকে ৭৭৫ মেট্রিকটন কয়লা বোঝাই লাইটার জাহাজটি ডুবে যায়। ডুবে যাওয়া জাহাজটি দেখা যাচ্ছে। এতে কেউ হতাহত হয়নি।

About বিডিলনিউজ ডেস্ক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*