বুধবার, ৩রা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ || ১৮ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ || ২০শে রজব, ১৪৪২ হিজরি

স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও নিরাপত্তার লক্ষ্যে সকল হাসপাতালের অচল যন্ত্রপাতি সচলের দাবিতে রিট

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
দুর্নীতি বন্ধে ,গভর্নর, দুদক ও বিএসইসির চেয়ারম্যানের বক্তব্য শুনানিতে কড়াকড়ি

ডেস্ক রিপোর্ট

স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও নিরাপত্তার লক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে মানুষের সঠিক রোগ নির্ণয়ের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক যন্ত্রপাতি অন্তর্ভুক্ত করাসহ সকল অচল যন্ত্রপাতি মেরামত করে সচল করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশনা চেয়ে রিট করা হয়েছে।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় জনস্বার্থে রিটটি দায়ের করেন সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী মো. জে আর খান (রবিন)। আইনজীবী নিজেই রিটের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রিটে যন্ত্রপাতি ক্রয়ের বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের ব্যর্থতাকে কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, সেইসঙ্গে এ বিষয়ে কেন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হবে না সে মর্মেও রুল জারির আর্জি জানানো হয়।

 

স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও নিরাপত্তার লক্ষ্যে সকল হাসপাতালের অচল যন্ত্রপাতি সচলের দাবিতে রিট
স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও নিরাপত্তার লক্ষ্যে সকল হাসপাতালের অচল যন্ত্রপাতি সচলের দাবিতে রিট

 

রিটে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি), কেন্দ্রীয় মেডিকেল স্টোর ডিপোর পরিচালকে বিবাদী করা হয়েছে।

আইনজীবী মো. জে আর খান রবিন রিটের বিষয়ে বলেন, ‘সংবিধানের ১৫(ক) ও ১৮(১) অনুচ্ছেদে স্বাস্থ্যসেবা ও জনস্বাস্থ্যের কথা উল্লেখ থাকলেও মূলত অনুচ্ছেদ ৩১ ও ৩২ অনুযায়ী মানুষের জীবন ও স্বাস্থ্যসেবা মৌলিক অধিকার, যা নিশ্চিত করার দায়িত্ব একমাত্র রাষ্ট্রের।

কিন্তু বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে জানা যায় যে, বাংলাদেশের অধিকাংশ সরকারি হাসপাতালে সঠিক রোগ নির্ণয়ের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক যন্ত্রপাতি নেই এবং বিদ্যমান যন্ত্রপাতির মধ্যে অধিকাংশই অচল।

এগুলো মেরামত করে সচল করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অর্থ বরাদ্দ হলেও তা যথাযথ কাজে ব্যবহৃত না হওয়ায় একদিকে দেশের সাধারন মানুষ সঠিক চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, অন্যদিকে সরকারও আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, যা অত্যন্ত দুঃখজনক।’

তিনি আরও বলেন, যত দ্রুত সম্ভব হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চে রিটটি শুনানির চেষ্টা করা হবে।এর আগে এ বিষয়ে গত ২৭ ডিসেম্বর সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল (আইনি) নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। ওই নোটিশের পরও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় আজ রিট দায়ের করা হয় বলে জানান এই আইনজীবী।

Responses

লেখক পরিচিতি