বুধবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
খালেদা জিয়ার রিট আবেদন খারিজ

খালেদা জিয়ার রিট আবেদন খারিজ

April 7, 2016

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা হারুন-অর রশিদের নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে মামলার অন্যতম আসামি খালেদা জিয়ার দায়ের করা রিট খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার (০৭ এপ্রিল) বিচারপতি রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি মাহমুদুল হকের সমন্বয়ে গঠিত ডিভিশন বেঞ্চ আবেদনটি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন উত্থাপন করে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় ৯ মার্চ খালেদার পক্ষে রিটটি দায়ের করেন তার আইনজীবী মাহবুব উদ্দিন খোকন। পরে ২৩ ও ২৪ তারিখে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ব্যস্ততা দেখিয়ে সময় চান। পরে আদালত সময় আবেদন মঞ্জুর করেন। সেই আবেদনের ওপর শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন হাইকোর্ট।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা এ মামলায় তদন্তের দায়িত্ব পান সংস্থাটির উপ-পরিচালক হারুন-অর রশিদ। তার নিয়োগপত্রে স্বাক্ষর করেন আরেক উপ-পরিচালক আকরাম হোসেন। মামলা বাতিলের আবেদনে বলা হয়, দুদকের তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ দেবে কমিশন। আর কমিশন বলতে তিন কমিশনারকে বোঝায়। অতএব হারুন-অর-রশিদের নিয়োগ আইনসম্মত হয়নি। তাই তদন্ত কর্মকর্তার নিয়োগ অবৈধ ঘোষণার পাশাপাশি মামলা বাতিল চাওয়া হয়েছিল।

২০১০ সালের ৮ আগস্ট জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় মামলা করে দুদক। মামলার অপর আসামিরা হলেন— খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছের তৎকালীন সহকারী একান্ত সচিব ও বিআইডব্লিউটিএর নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান। মামলাটি বর্তমানে নিম্ন আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ পর্যায়ে আছে।

About বিডিএলএন রিপোর্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.