মঙ্গলবার , ১০ ডিসেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
প্রো-ভিসির বিরুদ্ধে ডিগ্রি জালিয়াতির অভিযোগ

প্রো-ভিসির বিরুদ্ধে ডিগ্রি জালিয়াতির অভিযোগ

May 16, 2016

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপ-উপাচার্য (প্রো-ভিসি) অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমানের বিরুদ্ধে পিএইচডি ডিগ্রি লাভে জালিয়াতির অভিযোগ করেছেন ইবি বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও শাপলা ফোরামের একাংশের শিক্ষকরা।

সোমবার (১৬ মে) দুপুর ২টায় ইবি প্রেস কর্নারে এক সংবাদ সম্মেলনে শাহিনুর রহমানের পিএইচডি গবেষণা নিয়ে জালিয়াতির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, পিএইচডির জন্য সর্বোচ্চ ৫ বছর ও সর্বনি¤œ ২ বছরের সময়সীমা থাকলেও মাত্র ৫ মাস ৭ দিনে পিএইচডি গবেষণা শেষ করে ডিগ্রি নিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের এই অধ্যাপক। এছাড়া পিএইচডি রেজিস্ট্রেশনের আগেই গবেষণায় যোগ দেন তিনি।

প্রতিপক্ষের শিক্ষকরা অভিযোগ করেন, পিএইচডি গবেষণা শেষ করতে কমপক্ষে দুইটি সেমিনার করতে হয়। কিন্তু  শাহিনুর রহমান একটি সেমিনারও করেননি। এছাড়া পিএইচডি গবেষণা সম্পন্নে  ৯০ ক্রেডিট আওয়ার প্রয়োজন হলেও তিনি করেছেন মাত্র ৪০ ক্রেডিট আওয়ার।

সংবাদ সম্মেলনে আরো বলা হয়, ২০০২ সালের ২৩ জুলাই ড. শাহিনুর রহমান পিএইচডি গবেষণার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেন। কিন্তু পিএইচডি গবেষণার জন্য যোগদান করেন তার আগেই, ১১ জুলাই। তিনি পিএইচডি গবেষণার থিসিস জমা দেন একই বছরের ৩ জুলাই। ওই বছরের ৩০ ডিসেম্বর ইবির ১৭১তম সিন্ডিকেটে তাকে পিএইচডি ডিগ্রি দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত শিক্ষকরা জালিয়াতির দায়ে তদন্ত সাপেক্ষে উপ উপাচার্য শাহিনুর রহমানের বিচার দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সাবেক মহাসচিব অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী, শাপলা ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক ড. মাহবুবুল আরফিন, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান, অধ্যাপক ড. মেহের আলী, অধ্যাপক ড. আশরাফুল ইসলাম, ড. মোহাব্বত হোসেন প্রমুখ।

About বিডিএলএন রিপোর্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.