মঙ্গলবার , ১০ ডিসেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
রাঙামাটিতে তিন ব্যবসায়ীকে অর্থদণ্ড

রাঙামাটিতে তিন ব্যবসায়ীকে অর্থদণ্ড

June 18, 2017

পণ্যমূল্য বেশি রাখায় রাঙামাটিতে তিন ব্যবসায়ীকে অর্থদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। রবিবার (১৮ জুন) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা এ দণ্ড দেন।
সোহেল রানা  বলেন, ‘রিজার্ভ বাজারে খোলা তেল নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে ১০ টাকা বেশি দামে বিক্রি করায় মিলন দাস নামের এক দোকানিকে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়। এছাড়া, এক ডজন ডিম ৫ টাকা বেশি দামে বিক্রি করায় আবুল কালাম নামের এক দোকানিকে ১ হাজার টাকা ও ডিজেলের দাম লিটারে ১৩ টাকা বেশি নেওয়ায় বিধান নন্দী নামে এক অনুমোদিত ডিলারকে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়।’
রবিবার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা, মো. আখতারুজ্জামান ও সম্রাট খীসার নেতৃত্বে বাজার মনিটরিং টিম জেলার বনরূপা, রিজার্ভ বাজার, তবলছড়ি বাজার ও আসামবস্তি এলাকার বাজারে দিনব্যাপী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসময় ক্রেতা সেজে ফেনী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (দুর্যোগকালীন বিশেষ দায়িত্বে রাঙামাটি জেলা প্রশাসনে দায়িত্বরত) সোহেল রানা রিজার্ভ বাজারে গেলে ওই তিন ব্যবসায়ী তার কাছে পণ্যের বেশি দাম চান।
সোহেল রানা  বলেন, ‘বাজার অনেকাংশেই স্থিতিশীল। দুয়েকজন দোকানি পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে বেশি দামে পণ্য বিক্রির চেষ্টা করছে। কিন্তু ছদ্মবেশে বাজার পরিদর্শন ও জেলা প্রশাসকের কঠোর ও নিয়মিত নজরদারিতে বাজার এখন অনেকটাই স্থিতিশীল।’ পণ্যের মূল্য সংক্রান্ত বিষয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি দায়িত্বশীলভাবে লেখালেখি এবং কোথাও দ্রব্যমূল্য বেশি নেওয়া হলে সঙ্গে সঙ্গে তা প্রশাসনকে জানানোর অনুরোধও জানান তিনি।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আকতারুজ্জামান জানান, রাঙামাটিতে ৩০ হাজার লিটার পেট্রোল এসে পৌঁছেছে। আরও ২০ হাজার লিটার পেট্রোল শিগগিরই পৌঁছাবে। এই পেট্রোল দিয়ে রাঙামাটির ৩০ দিনের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব। বাজারে এখন কোনও সংকট নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ীকে আইনের আওতায় এনে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। এই মনিটরিং অব্যাহত থাকবে।’ অভিযানে জেলা মার্কেটিং অফিসার মোশতাক আহমেদও উপস্থিত ছিলেন।

About বিডিএলএন রিপোর্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.