বুধবার , ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
তরুন আইনজীবীর উপন্যাসিক হিসেবে আত্মপ্রকাশ

তরুন আইনজীবীর উপন্যাসিক হিসেবে আত্মপ্রকাশ

ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

সুপ্রীম কোর্টের নিয়মিতভাবে আইন পেশায় নিয়োজিত তরুণ আইনজীবীগণের মধ্যে মো. ইমরান হোসাইন রুমেল-ও একজন। মূলত ২০১৬ সালের শেষের দিক থেকেই তিনি সুপ্রীম কোর্টে নিয়মিত হন। আইন পেশার পাশাপাশি লেখালেখিতে আনাগোনা তার অনেক আগে থেকেই। লেখালেখির হাতে খড়ি ছোট বেলা হতেই। তারই ধারাবাহিকতায় তার এই শখ ও স্বপ্নকে এবার কিছুটা বাস্তবায়িত করার চেষ্টা করেছেন। তার লেখালেখির প্রতি অদম্য আগ্রহ থেকেই মূলত এবারের একুশে বইমেলা,১৯ এ একটি উপন্যাস বের করতে সক্ষম হয়েছেন। তরুন লেখক হিসেবে প্রথম বারের মত নিজেকে আত্মপ্রকাশ করলেন  একটি সামাজিক প্রতিবাদী উপন্যাস দিয়ে। তার প্রকাশিত বইটির নাম “কালো হাতে সাদা আইন”, বইটি পাওয়া যাবে অমর একুশে গ্রন্থমেলা স্টল নং- ৩০১-৩০৩।

আলোচ্য উপন্যাসের বিষয়বস্তু সংক্ষেপে তুলে ধরা হলোঃ

আমরা সংবিধান মোতাবেক বলে থাকি আইন প্রত্যেকের জানা থাকা দরকার। আইনজীবী কিংবা পেশাজীবীদের মতো না জানলেও কোনো সমস্যা নেই, কিন্তু মৌলিক বিষয়ে সবারই কিছু না কিছু জানা থাকা দরকার। প্রতিদিন নানা কারণে অকারণে মানুষকে আইনের জালে জড়িয়ে পড়তে হয়, কিন্তু  তা থেকে মুক্ত হওয়াটা হয়ে যায় মহা ঝামেলার বিষয়। আইন ও বিচার বিষয়ে অনেক ধারণা থাকা সত্ত্বেও অব্যবস্থাপনার কারণে বিচার প্রার্থীরা প্রকৃত বিচার পাওয়া থেকে অনেক দূরে থেকে যান এবং সংগত কারণে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ হারিয়ে ফেলেন। প্রতিনিয়ত এমন ঘটনা দেখা যায়, কিন্তু প্রতিকার পাওয়া দুষ্কর হয়ে উঠে। আদালতে যারা ন্যায়বিচার দেওয়ার জন্য নিয়োজিত, বিচার কাজে সহযোগিতা করার জন্য সরকার যাদের নিয়োগ প্রদান করেছেন তারাই যখন কালো শক্তির আধার হয়ে উঠে তখন ন্যায়বিচার দূরে বসে আক্ষেপ ছাড়া আর কী করতে পারে? একজন আমীর সাহেব ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে ন্যায়বিচার প্রার্থনা করতে গিয়ে সাইমন নামের আইনজীবীর ধুর্ততা, আদালতের কর্মচারীদের কুটিলতার শিকার হয়ে কী হয়রানিতে পড়েছেন, এটি আলোচ্য উপন্যাসের বিষয়বস্তু। অবশেষে, আইমন নামের একজন আইনজীবী আমীর সাহেবকে বিপদমুক্ত করার দায়িত্ব নিলেন। দায়িত্ব নিয়ে দেখলেন,  সরকার বাহাদুরের আইন অঙ্গনে সাদা আইন ব্যবহারের জন্য কালো শক্তির বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার বিকল্প কিছু নাই। সর্ষের ভিতরের ভুতটাকে বের করার দাবি আজকের নয়, যুগের। একজন নবীন আইনজীবী, আদালতের কর্মচারীগণ, সিনিয়র আইনজীবীগণের সহমর্মিতা সব কিছু মিলিয়ে বিচার প্রার্থীদের বিচার পাওয়ার সহজ পরিবেশ নিশ্চিত করা আামাদের সকলের দায়িত্ব।

বইটিতে অল্প সময়ে একজন নবীন আইনজীবীর কর্মকান্ডে নানান প্রতিকূলতা বিষয়ে আলোচনা চলে এসেছে। আবার একজন বিচার প্রার্থীর আর্জিও সংযোজিত হয়েছে।

লেখক মো. ইমরান হোসাইন রুমেল বিডি’ল’নিউজকে বলেন, ”নতুন লেখক হিসেবে নানা ভুলভ্রান্তি থেকে যাওয়াটাই স্বাভাবিক, আশা করি সকলে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন”। উপন্যাস পড়ে পাঠকগন সচেতন হবার কোনো সুযোগ পেলে লেখকের পরিশ্রম সার্থক হবে এমনটাই আশা করছেন সবাই।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*