শনিবার , ২৩ মার্চ ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
অভিজ্ঞ নয়, চাই নবীন ও তরুন সম্পাদক

অভিজ্ঞ নয়, চাই নবীন ও তরুন সম্পাদক

মার্চ ১১, ২০১৯

গতকাল রবিবার আসন্ন সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচনের প্রার্থী পরিচিতি সভায় বর্তমান সেক্রেটারি প্রার্থী যিনি বিগত বার নির্বাচিত হয়েছেন এবং এইসভায় তার বক্তব্য যা ছিল তা প্রায়ই একই কথামালা, প্রায় একই শব্দচয়নে এবং এই বক্তব্য বিগত বছর ধরেই শুনে আসছি।

তার বক্তব্যে যেই বিষয়টা সবচেয়ে বেশী প্রাধান্য পায় তাহলো, তিনি এই কয়েক বছরে সম্পাদক হিসাবে যেই অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছেন বা বারকে যেই জঠিল হিসাব নিকাশে নিয়ে গেছেন তাই এই বারকে নাকি সুষ্ঠুভাবে চালাতে গেলে ওনার কোন বিকল্প নাই এবং নতুন কোন সম্পাদক এসে বারকে ঠিক সেইভাবে পরিচালনা করতে পারবেন না দেখেই তিনি প্রার্থী হয়েছেন যেমন অতীতেও হয়েছিলেন বা ভবিষ্যতেও হবেন। তার প্রার্থী হওয়ার মূল ভিত্তিটাই হল অভিজ্ঞতা। তিনি অভিজ্ঞতা দিয়ে বারকে আসলে কোন জায়গায় নিয়ে গেছেন তার বিচারের ভার সমস্ত আইনজীবীদের কাছে দিয়ে গেলাম।

তর্কের খাতিরেই ধরে নিলাম/ বারের অভিজ্ঞতাছাড়া এই বার কেউ চালাতে পারবেন নাতার মানে হল আমরা বর্তমান সম্পাদককেই সারাজীবন প্রার্থী হিসাবে পাব আর তাকেই নির্বাচিত করতে বাধ্য হবো?

দ্বিতীয়তএইরকম একটা বার যা চালাতে নাকি আর কিছু দরকার নাই শুধুই দরকার অভিজ্ঞতা, তাহলে আল্লাহ না করুন সম্পাদক সাহেবের কিছু একটা হয়ে গেল তাহলে এই বার চলবে কিভাবে? আমরা যে একেবারে এতিম হয়ে যাব।

তৃতীয়তবার চালাতে যদি শুধু অভিজ্ঞতাই লাগে তাহলে আমাদের সুপারিন্টেন্ডেন্ট সাহেবের নাকি এই বার চালানোর প্রায় ৪০ বছরের অভিজ্ঞতা আছে, তাহলে সম্পাদক প্রার্থী হিসাবে সুপারিন্টেন্ডেন্ট সাহেবই ভাল প্রার্থী হয়।

চতুর্থতবার চালাতে যদি অভিজ্ঞ সম্পাদকই দরকার হয় তবে বারের প্রেসিডেন্ট সহ বাকী ১৩ জনের কাজটা কি বা দরকারই বা কি?

পঞ্চমতবার চালাতে যদি পূর্বের অভিজ্ঞতারই দরকার হয় তবে সম্পাদক হিসাবে তিনি যেই বছর প্রথম প্রার্থী হয়েছিলেন সেইদিন তিনি কোন মুখে ভোট চেয়েছিলেন ভোট নিয়েছিলেন?

কাজেই এর সবই ভাওতাবাজি, এসবে বিভ্রান্ত হবেননা, নতুন প্রার্থীকে ভোট দিয়ে সম্পাদক তৈরী করুন, সামনের দিনগুলোতে সুবিধা পাবেন নইলে একজনের উপরই নির্ভরশীল হয়ে থাকতে হবে, বিকল্প ব্যাক্তিকে সম্পাদক হিসাবে তৈরী করা না গেলে সত্যি সত্যি এই বারের কপালে দূর্ভোগ আছে এবং এমন পরিনামের জন্য দায়ী হবেন শুধুই আপনারা।

সম্পাদক হিসাবে নতুন প্রার্থী আব্দুন নুর দুলালকেই ভোট দিন এবং সাদা প্যানেলের সবাইকে জয়যুক্ত করুন। আপনারা আমাদের পরিবর্তন উপহার দিন আমরা আপনাদের উন্নয়ন উপহার দিব। জয় বাংলা।

লিখেছেনঃ জনাব কুমার দেবুল দে, আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.