মঙ্গলবার , ২৫ জুন ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
বিকালের মধ্যে টাকা পরিশোধ না করলে গ্রিনলাইনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: হাইকোর্ট

বিকালের মধ্যে টাকা পরিশোধ না করলে গ্রিনলাইনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: হাইকোর্ট

এপ্রিল ১০, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: গ্রিনলাইন বাসের ধাক্কায় পা হারানো রাসেলকে ৫০ লাখ ক্ষতিপূরণের যে আদেশ হাইকোর্ট দিয়েছে এর কিছু টাকা আজ বুধবার বিকাল তিনটার মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। না করলে গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে উচ্চ আদালত।

রাসেলের পা হারানোর ঘটনায় কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে আইনজীবী উম্মে কুলসুমের করা এক রিটের পরিপ্রেক্ষিতে গত ১২ মার্চ হাইকোর্ট এক আদেশে দুই সপ্তাহের মধ্যে রাসেলকে ৫০ লাখ টাকা দিতে গ্রিন লাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়। সেই সঙ্গে প্রয়োজন হলে তার পায়ে অস্ত্রোপচার এবং কাটা পড়া বাঁ পায়ে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে কৃত্রিম পা লাগানোর খরচ দিতে ওই পরিবহন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়।

তবে হাইকোর্টের ওই আদেশের বিরুদ্ধে গ্রিন লাইন পরিবহন আপিল বিভাগ আবেদন করে। তবে আপিল আবেদনটি গত ৩১ মার্চ খারিজ করে আদালত। ফলে হাইকোর্টের আদেশ বহাল থাকে।

তবে পা হারানো রাসেলের সঙ্গে কর্তৃপক্ষের কেউ যোগাযোগ করেনি। ওই আদেশ বাস্তবায়নের বিষয়ে আজ বুধবার হাইকোর্টে শুনানির দিন ধার্য ছিল। সেখানে আজকের মধ্যে কিছু টাকা পরিশোধের নির্দেশনা আসে।

২০১৮ সালের ২৮ এপ্রিল যাত্রাবাড়ীতে মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে গ্রিন লাইন পরিবহনের বাসের চাপায় এক যুবকের বাম পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ওই যুবককে চাপা দেওয়ার পর গ্রিন লাইন পরিবহনের বাসটি এবং তার চালককে পুলিশ আটক করে। পরে পুলিশ জানায়, মো. রাসেল (২৫) নামের ওই যুবক একটি প্রাইভেটকার চালাচ্ছিলেন। বাসটি তার গাড়িকে ধাক্কা দিলে প্রতিবাদ জানাতে বাস থামাতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বাস চালক তার উপর দিয়েই বাস চালিয়ে দেন। এতে রাসেলের বা পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

গাইবান্ধার পলাশবাড়ির বাসিন্দা রাসেল রাজধানীর আদাবর এলাকার সুনিবিড় হাউজিংয়ে বসবাস করতেন এবং স্থানীয় একটি ‘রেন্ট-এ-কার’ প্রতিষ্ঠানের প্রাইভেটকার চালাতেন। রাসেলের পা হারানোর ঘটনার পর গত বছরের ১৪ মে ক্ষতিপূরণ চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী উম্মে কুলসুম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.