সোমবার , ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
টয়লেটে পাওয়া শিশুটিকে দত্তক নিতে শত শত ফোন, কেবিনে পুলিশ মোতায়েন

টয়লেটে পাওয়া শিশুটিকে দত্তক নিতে শত শত ফোন, কেবিনে পুলিশ মোতায়েন

মে ১৫, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর শিশু হাসপাতালের টয়লেট থেকে উদ্ধার করা নবজাতক ফুটফুটে মেয়ে শিশুটিকে দত্তক নিতে শত শত ফোন আসছে শেরে বাংলা নগর থানায়। হাসপাতালে শিশুটিকে দেখতে ও দত্তক নিতে ভিড় করছেন শতাধিক মানুষ। নিরাপত্তার জন্য শিশু হাসপাতালের ওই কেবিনের বাইরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে । এছাড়া শিশুটির বাবা-মাকে খুঁজতে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। কিন্তু আজ বুধবার সকাল পর্যন্ত তার বাবা-মাকে পাওয়া যায়নি। হাসপাতাল ও আশপাশের সিসিটিভি ক্যামেরা ফুটেজ দেখে শিশুটিকে কে বা কারা ফেলে গেছেন সেই রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা করছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরে ওই নবজাতককে হাসপাতালের টয়লেটে দেখে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান এক রোগীর স্বজন। শিশুটির বয়স আনুমানিক ৩ দিন। উদ্ধারের পর শিশুটিকে ওই হাসপাতালেই ভর্তি করা হয়েছে।

শেরে বাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানে আলম জাগো নিউজকে বলেন, বুধবার সকাল পর্যন্ত কেউ শিশুটিকে নিজের বলে দাবি করেনি। তবে শিশুটি জন্য রাত থেকে আমার কাছে, শেরে বাংলা নগর থানার ডিউটি অফিসারের কাছে এবং ইন্সপেক্টর তদন্তের মোবাইলে শত শত ফোন আসছে। সকাল থেকে আমি নিজেই ১০০’র বেশি ফোন রিসিভ করেছি। সবাই শিশুটিকে দত্তক নিতে চাচ্ছেন। আমরা আইনি প্রক্রিয়া অনুযায়ী তদন্তের কাজ করছি।

তিনি আরও বলেন, রাত থেকেই শিশুটিকে দেখতে ও দত্তক নিতে হাসপাতালে অনেকেই ভিড় করেছেন। এতে শিশুর স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ার আশঙ্কা শিশু হাসপাতালে তার কেবিনের বাইরে পুলিশ মোতায়েন করেছি। চিকিৎসক ও তদন্ত সংশ্লিষ্ট ছাড়া কাউকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না।

পুলিশের তেজগাঁও জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) মাহমুদ হাসান জাগো নিউজকে বলেন, শিশুটির বাবা-মাকে খুঁজতে রাতে ডিসি-তেজগাঁও-ডিএমপি ফেসবুক পেজে ছবিসহ একটি পোস্ট দেওয়া হয়। এরপর থেকে অনেক ফোন আসছে শিশুটিকে দত্তক নেওয়ার জন্য। অনেকে ফেসবুক পোস্টের নিচেই তাদের দত্তক নেয়ার জন্য নাম-ঠিকানা ও সিরিয়াল দিয়ে রাখছেন। আমরা তার বাবা-মাকে খুঁজে বের করতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। পরবর্তীতে শিশু আইনে আদালত যা সিদ্ধান্ত দেবে পুলিশ সেটা মেনেই কাজ করবে।

নবজাতকের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে শিশু হাসপাতালের জনসংযোগ কর্মকর্তা এম এ হাকিম জাগো নিউজকে বলেন, শিশুটি এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করবে শিশু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এদিকে উদ্ধার হওয়া নবজাতকের বাবা-মাকে খুঁজতে তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) বিপ্লব কুমার সরকারের ফেসবুক পেজে একটি পোস্ট দেয়া হয়েছে। পোস্টটি অনেককে আবেগাপ্লুত করেছে। পোস্টটি হুবুহু তুলে ধরা হলো-

‘মা, আমাকে নিয়ে যাও, তোমায় ছাড়া ঘুম আসে না আমার’
এই নিষ্পাপ শিশুটিকে শেরে বাংলা নগর থানাধীন শিশু হাসপাতালে পাওয়া গিয়েছে। শেরে বাংলা নগর থানা পুলিশের তত্ত্বাবধানে শিশুটি শিশু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এই নিষ্পাপ শিশুটি ফিরে পাক তার মা-বাবাকে। মা-বাবার কোল আলোকিত করে বেড়ে উঠুক আসল পরিচয়ে। মা-বাবার কোল ভরে উঠুক সুক্রন্দসী এই নিষ্পাপ শিশুটির কান্না ও হাসিতে।

যদি কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি শিশুটির মা-বাবা/পরিচিত জনকে চিনে থাকেন বা তাদের সম্পর্কে কোন তথ্য জেনে থাকেন, নিচে উল্লেখিত মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো হলো-

ওসি (শেরে বাংলা নগর থানা): ০১৭১৩৩৯৮৩৩৫, এসি (তেজগাঁও জোন): ০১৭১৩৩৭৩১৭৮

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.