মঙ্গলবার , ১২ নভেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
খালেদা জিয়ার জামিনে আপত্তি নেই আ. লীগের

খালেদা জিয়ার জামিনে আপত্তি নেই আ. লীগের

জুন ২৪, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আইনি প্রক্রিয়ায় জামিন পেলে আপত্তি নেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের। শাসক দলের শীর্ষস্থানীয় নেতারা বলছেন, খালেদা জিয়ার মামলা বা সাজা কোনও কিছুর সঙ্গেই আওয়ামী লীগের সম্পর্ক নেই। তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে ১/১১-এর সরকার। আর সাজা দিয়েছেন আদালত। এখন বয়স, শারীরিক অবস্থা ও সাজার পরিমাণ বিবেচনায় খালেদা জিয়া জামিন পেলে আপত্তি জানাবে না আওয়ামী লীগ।

জানতে চাইলে শাসক দলের একজন দায়িত্বশীল নেতা বলেন, আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে খালেদা জিয়া জেলে আছেন। এটা আইনি বিষয়, রাজনৈতিক নয়। সরকার কখনোই আদালতের বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে না, করার সুযোগও নেই। আওয়ামী লীগের আইনের শাসনে বিশ্বাস করে, বিচার বিভাগের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে। এখান থেকে সরকার কিংবা দল হিসেবে আওয়ামী লীগেরও ‘ফায়দা’ তোলার কিছু নেই। আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। খালেদা জিয়া যদি আইনি পথে মুক্তি পান, সেটা নিয়ে আওয়ামী লীগের মাথাব্যথা থাকার কথা নয়।

প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে আছেন খালেদা জিয়া। এ দু’টি মামলা ছাড়াও তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা আছে, যেগুলোতে তিনি জামিন পেয়েছেন। আর কিছু মামলার ক্ষেত্রে তার বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি হয়নি। রবিবার (২৩ জুন) জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিচারিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে করা আপিলের রায় হওয়ার কথা রয়েছে।

খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে আওয়ামী লীগের অবস্থান জানতে চাইলে দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়া এতিমের টাকা মেরে খেয়েছেন বলে আদালতে প্রমাণিত হয়েছে। এ কারণেই তিনি দণ্ডিত হয়েছেন। বিএনপি নেতারা বারবার দাবি করছেন, খালেদা জিয়া অসুস্থ। আবার তার বয়সজনিত জটিলতার কথাও শোনা যাচ্ছে। এসব আদালতের বিষয়। সবকিছু মিলে এখন আদালত যদি যদি তাকে জামিন দেন, সেখানে আপত্তি করার কী আছে?’ তবে, বিষয়টি সরকারের দিক থেকে অ্যাটর্নি জেনারেল দেখবেন বলেও তিনি জানান।

খালেদা জিয়ার জামিন প্রসঙ্গে তার আওয়ামী লীগের অবস্থান জানতে চাইলে দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, ‘তার মামলার সঙ্গে আওয়ামী লীগের কোনও সংশ্লিষ্টতা নেই। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিল এক-এগারোর সরকার। যে অভিযোগে মামলা হয়, আদালতে সাক্ষী-প্রমাণের ভিত্তিতে তা প্রমাণিত হওয়ায় তিনি শাস্তি পান। সম্পূর্ণ আইনি প্রক্রিয়ায় তিনি দণ্ডিত হয়েছেন। খালেদা জিয়া আইনি প্রক্রিয়ায় জামিন পেলে আওয়ামী লীগের আপত্তি নেই বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.