শনিবার , ৯ নভেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
যুক্তরাষ্ট্রে আবারো বন্দুক হামলা, নিহত ১০

যুক্তরাষ্ট্রে আবারো বন্দুক হামলা, নিহত ১০

আগস্ট ৪, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: টেক্সাসে হামলার একদিন পার না হতেই আজ রবিবার যুক্তরাষ্ট্রের ওহিও অঙ্গরাজ্যের ডেটনে বন্দুক হামলায় দশ জন নিহত ও ১৬ জন আহত হয়েছেন। মার্কিন সংবাদমাধ্যমের বরাত এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি।

পুলিশের বরাতে বিবিসির ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, স্থানীয় সময় দুপুর ১‌টায় ওহিও অঙ্গরাজ্যের ওরেগন জেলার একটি বারের বাইরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, হামলার ঘটনায় হতাহতদের পাশের বেশ কয়েকটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বন্দুক হামলাকারীও ঘটনাস্থলে নিহত হয়েছেন।

এর আগে শনিবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টার দিকে যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকোর সীমানা থেকে খানিকটা দূরে টেক্সাসের এল প্যাসোর ওয়ালমার্টের সুপার সেন্টারে বন্দুকধারীর গুলিতে মারা গেছে অন্তত ২০ জন। আহত হয়েছে কমপক্ষে ২৬ জন। সে ঘটনায় সন্দেহভাজন ২১ বছর বয়সী সন্দেহভাজন এক শ্বেতাঙ্গ যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

এল প্যাসোর মেয়র ডি মারগো হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, অপরাধীদের বিচার নিশ্চিতকরণে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হবে।

টেক্সাসের এল প্যাসোর ওয়ালমার্ট সুপার সেন্টারে বন্দুকধারীর গুলিতে প্রাণহানির ঘটনায় শোকাবহ পরিস্থিতি তৈরী হয়েছে। তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় একথা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পসহ রাজনৈতিক দলের নেতারা।

দু:খজনক এই ঘটনার পরপরই তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়া জানিয়ে শোক প্রকাশ করে বক্তব্য রেখেছেন ডেমোক্র্যাট দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী বেটো ও’রোর্ক। এরই মধ্যে নেভাডা ও ক্যালিফোর্নিয়ায় হতে যাওয়া প্রচারণা বাতিল করে এল পাসোতে ফেরার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

এল প্যাসোর জনসাধারণের মানসিকতা পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে শক্ত উল্লেখ করে বেটো ও’রোর্ক আশা প্রকাশ করে বলেন, সবাই ঐক্যবদ্ধ থেকে আগামী এমন ধরণের ঘটনার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলবে।

টেক্সাসের ডেমোক্র্যাটিক রিপ্রেজেন্টেটিভ ভ্যারোনিকা এসকোবার টেলিফোনে জানানো প্রতিক্রিয়ায় দু:খ প্রকাশ করে বলেছেন, এই ঘটনা মেনে নেয়া যায় না। অনেক হয়েছে। এবার সময় হয়েছে অস্ত্র আইনে পরিবর্তন এবং সময়োপযোগী সংস্কার করার।

শপিংমলে বন্দুকধারীর হামলার ঘটনার তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প টুইটবার্তায় শোক প্রকাশ করে বলেছেন, এল পাসোর ঘটনাটি অত্যন্ত দু:খের এবং যা ঘটেছে সেটি খুব খারাপ ঘটনা। এই ঘটনার পর স্থানীয় এবং স্টেইট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন জানিয়ে প্রেসিডেন্ট টুইটবার্তায় লিখেছেন, তিনি সার্বক্ষনিক খোঁজখবর রাখছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.