বুধবার , ২০ নভেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
ডেপুটি-সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল নিয়োগের বৈধতা নিয়ে রিট

ডেপুটি-সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল নিয়োগের বৈধতা নিয়ে রিট

সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে রাষ্ট্রপক্ষের মামলা পরিচালনার জন্য ৭০ জন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল (ডিএজি) এবং ১০৫ জন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল নিয়োগ যথাযথ প্রক্রিয়ায় হয়নি দাবি করে এর বৈধ্যতা চ্যালেঞ্জে রিট দায়ের করা হয়েছে।

আজ রবিবার ফরহাদ আহমেদ ভূঁইয়া নামে এক আইনজীবী হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট পিটিশনটি দায়ের করেন।

রিটে উল্লেখ করা হয়েছে, সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে ন্যূনতম পাঁচ বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে সংশ্লিষ্ট ডেপুটি ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেলদের। কিন্তু ৭০ জন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল (ডিএজি) এবং ১০৫ জন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল নিয়োগ প্রক্রিয়ায় এটি মানা হয়নি।

আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের সলিসিটর অনুবিভাগ থেকে গত ৭ জুলাই সুপ্রিম কোর্টের ১০৫ জন আইনজীবীকে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। সেখানে উল্লেখ করা হয়, রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে ‘দ্য বাংলাদেশ ল অফিসার্স অর্ডার ১৯৭২-এর ৩ (১) অনুচ্ছেদ’ অনুযায়ী, সুপ্রিম কোর্টের ১০৫ জন আইনজীবীকে পুনরায় আদেশ না দেয়া পর্যন্ত বাংলাদেশের সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল পদে নিয়োগ প্রদান করা হলো। এর আগে নিয়োগ পাওয়া ৫২ জনকে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে বহাল রাখা হয়েছে।

এ নিয়ে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেলের সংখ্যা দাঁড়াল ১৫৭ জনে। বর্তমানে একজন অ্যাটর্নি জেনারেল, দু’জন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল রয়েছেন।

গত ২১ জুলাই রাষ্ট্রপতির অনুমোদন ক্রমে আইন মন্ত্রণালয়ের সলিসিটর কার্যালয় সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে রাষ্ট্রপক্ষের মামলা পরিচালনার জন্য ৭০ আইনজীবীকে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল (ডিএজি) হিসেবে নিয়োগ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এর মধ্যে ৩১ জনকে নতুন, ৩২ জনকে পুনরায় এবং ৭ জন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল থেকে পদোন্নতি দিয়ে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.