মঙ্গলবার , ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার যুক্তিতর্ক শুরু বুধবার

নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার যুক্তিতর্ক শুরু বুধবার

সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যা মামলার সাক্ষ্য ও জেরা শেষ হয়েছে। ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে সাক্ষ্য নেয়ার পর আগামী বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) এই মামলায় যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য দিন ধার্য করা হয়েছে।

অভিযোগ গঠন হওয়ার পর গত ২৭ জুন থেকে সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত এই মামলায় মোট ৮৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা সম্পন্ন হয়েছে। মামলায় মোট ৯১ জন সাক্ষী ছিলেন আর বাকী ৪ জন সাক্ষীর দাখিলকৃত বক্তব্য অপর সাক্ষ্যদের দ্বারা প্রমাণিত হওয়ার কারণে তাদের আদালতে সাক্ষ্য দেয়ার প্রয়োজন হয়নি।

এই বিষয়ে জেলা জজ আদালতের সরকারি কৌসূলী হাফেজ আহাম্মদ বলেন, ফৌজদারী কার্যবিধির ৩৪২ ধারা মেতাবেক বিচারক এই মামলায় অভিযুক্ত ১৬ আসামির বক্তব্য শোনেন। আদালতে ১৬ আসামি সকলেই আত্মপক্ষ সমর্থন করে বিবৃতি দিয়ে নিজেদের নির্দোষ দাবি করেছেন।

আদালত ১১ সেপ্টেম্বর থেকে এই মামলায় যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন ধার্য করেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ জুন অভিযোগ গঠন করার পর ৯১ জনের মধ্যে ৮৭ সাক্ষীকে আদালতে তাদের সাক্ষ্যগ্রহণ এবং জেরার জন্য উপস্থাপন করা হয়েছিলো। গত ২০ জুন সাক্ষ্যগ্রহণ করার জন্য এই আদেশ দেন আদালত। এই মামলার চার্জশিট জমা দেয়ার আগে ৭ জন সাক্ষী আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

গত ৬ এপ্রিল, ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় আলিম পরীক্ষা কেন্দ্রে গেলে নুসরাত জাহান রাফিকে ছাদে ডেকে নিয়ে তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ দৌলার বিরুদ্ধে করা শ্লীলতহানির মামলা তুলে না নেয়ার কারণে তার গায়ে আগুন দেয়া হয়। ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুসরাত মারা যান।

পরে এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) ফেনীর পরিদর্শক মো. শাহ আলম মোট ১৬ জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.