রবিবার , ২০ অক্টোবর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
জি কে শামীমের বন্ধ প্রকল্পে প্রয়োজনে নতুন টেন্ডার: গণপূর্তমন্ত্রী

জি কে শামীমের বন্ধ প্রকল্পে প্রয়োজনে নতুন টেন্ডার: গণপূর্তমন্ত্রী

অক্টোবর ৯, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম জানিয়েছেন, সরকারি প্রকল্পের কাজ বন্ধ করে দেয়ায় গ্রেফতার হওয়া জি কে শামীমের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জি কে বিল্ডার্সের কাছে আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে নোটিশ পাঠানো হবে বলে। এবং প্রয়োজনে নতুন টেন্ডারের মাধ্যমে বাকি কাজ করা হবে।

আজ বুধবার (৯ অক্টোবর) সচিবালয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) গঠিত প্রাতিষ্ঠানিক টিমের গণপূর্ত অধিদফতরের দুর্নীতির উৎস ও এসব দুর্নীতি প্রতিরোধে সুপারিশের প্রতিবেদন হস্তান্তরের সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান তিনি।

হাজার হাজার কোটি টাকার সরকারি সব বড় প্রকল্পের কাজ করছে জি কে শামীমের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জি কে বিল্ডার্স। গত ২০ সেপ্টেম্বর র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হন শামীম।

জি কে শামীম যে কাজগুলো করেছেন সেগুলো মানসম্মত কি না- জানতে চাইলে রেজাউল করিম বলেন, জি কে শামীমের অনেকগুলো প্রকল্প চলমান রয়েছে, সেই প্রকল্পের কিছু কিছু জায়গায় তারা কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। এই অজুহাতে যে, তাদের অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করা হয়েছে, টাকা-পয়সা নেই।

গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, আমরা তাদের নোটিশ দেব, যদি তারা এগিয়ে না আসেন, তারা যে পর্যায়ে করেছেন কোনোটার (ভবনের) যদি ফাউন্ডেশন হয়ে থাকে, কোনোটা যদি তিনতলা পর্যন্ত কাজ হয়ে থাকে, আমরা পরিমাপ করে সেটা যথাযথ হয়েছে কি না, আমাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার ইন্সট্রুমেন্ট আছে, দক্ষ লোকও আছে। পরীক্ষা করে বাকি কাজটা আমরা আবার টেন্ডার দিয়ে করব।

মন্ত্রী বলেন, তিনি যেসব কাজ ইতোমধ্যে শেষ করে হ্যান্ডওভার করেছেন, কোনো কোনো কাজ আছে ৫ শতাংশ কাজ বাকি আছে, এমন আমাদের সচিবালয়ের বিল্ডিং, আরও কয়েকটা আছে। আমরা কাজ বুঝে নেয়ার আছে টেন্ডারের টার্মস অ্যান্ড কন্ডিশন অনুযায়ী কোয়ালিটি কাজ হয়েছে কি না, না বুঝে কোনোটা আমি রিসিভ করব না। এবং যে কাজগুলো নিয়ে অনেক বেশি আলোচনা হয়েছে, আমি প্রাসঙ্গিকভাবে বলতে পারি- আমি মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করার পূর্বের কাজ। তারপরও এটি কন্টিনিউয়াস প্রসেস। এক মন্ত্রী গেছেন আরেক মন্ত্রী আসছেন, এটা ধারাবাহিকতা। কাজ বুঝে নেব, কোনো কাজ সঠিক না হলে আমরা আদায় করে নেব।

জি কে শামীমের কোম্পানিকে কবে নাগাদ নোটিশ দেয়া হবে জানতে চাইলে গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, আমরা আশা করছি আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে সমস্ত প্রকল্পে নোটিশ চলে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.