রবিবার , ৮ ডিসেম্বর ২০১৯
সদ্যপ্রাপ্ত
সরাসরি হাইকোর্ট প্রাকটিস পারমিশন এর আইনগত বিশ্লেষণ

সরাসরি হাইকোর্ট প্রাকটিস পারমিশন এর আইনগত বিশ্লেষণ

November 30, 2019

৩১ অক্টোবর, ২০১৯, আইনের জগতের এক ইতিহাস!

৩১ অক্টোবর, ২০১৯ বাংলাদেশের ইতিহাসে দুইটি ঘটনা ঘটেছে। এই দিনে বাংলাদেশে ৯ জনকে হাইকোর্টে অস্থায়ী বিচারপতি হিসাবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে এবং বাংলাদেশ বার কাউন্সিল ইতিহাস সৃষ্টি করে একজন ব্যাক্তিকে সরাসরি High Court Practice Permission দিয়েছে। আজকের লেখায় যে ব্যাক্তিকে সরাসরি High Court Practice Permission দিয়েছে তার আইনগত বিশ্লেষণ করতে চাই।

৩১ অক্টোবর, ২০১৯ তারিখে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল কর্তৃক অর্থের বিনিময়ে যে বেসরকারী গেজেট প্রকাশিত হয় তা The Bangladesh Legal Practitioners and Bar Council Rules, 1972 এর বিধি ৭৩ অনুযায়ী প্রকাশ করা হয়েছে। বিধি ৭৩ এ বলা আছে “The roll prepared under Article 20 and all additions, alterations and corrections made therein shall be notified in the official Gazette.”

এখন দেখা যাক Article 20 তে কি আছে?

Article 20 বলছে

“The Bar Council shall prepare and maintain a roll of advocates in which shall be entered the names of –

(a) all persons who were, as advocates, entitled to practise in the High Court or in any court subordinate to the High Court immediately before the commencement of this order;
(b) all persons who are admitted as advocates under the provisions of this Order.”

Article 20(a) এখন আমাদের দেশে প্রযোজ্য নেই কিংবা এই বিধির ব্যবহার এখন আর দেখা যায় না। এই বিধি টি ১৯৭২ সালের Bangladesh Legal Practitioners and Bar Council Order এর আগে যারা Advocate বা Entitled to practice in High Court ছিলেন তাদের জন্য প্রযোজ্য ছিল। তেমন কোন Advocate দের মাঝে উল্লেখ্যযোগ্য হলেন Barrister Rafiq Ul Huq Sir যিনি 1960 সালে তৎকালীন High Court এ practice এর অনুমতি পেয়েছিলেন। এমন আরো কয়েকজন Advocate আমাদের দেশে আছেন।

Article 20(b) এখন আমাদের দেশে প্রযোজ্য কিংবা বাহুল ব্যবহৃত। এই বিধি অনুযায়ী কোন ব্যাক্তি যারা Advocate হিসাবে Admit হবে তাদের নাম ই একমাত্র Advocate’s Roll এ অন্তর্ভুক্ত হবে। তাহলে প্রশ্ন আসে কারা Advocate বা Advocate হিসাবে কিভাবে Admit হওয়া যায়।

Article 2(a) “Advocate” means an advocate entered in the roll under provisions of this order”.

এই সংক্রান্তে বিধি ৫৮ অনুযায়ী কোন ব্যাক্তি কে নির্ধারিত Form ‘A’ তে আবেদন করতে হবে এবং যারা যোগ্যতার সকল শর্ত পূর্ন করবে তারা “Advocate” হিসাবে বিবেচিত হবে। Article 27(1) অনুযায়ী একজন প্রার্থিকে প্রায় কম বেশি ১০/১১ টি যোগ্যতার মাপকাঠি পার হতে হয়। যোগ্যতার মাপকাঠির অন্যতম যোগ্যতা হল বার কাউন্সিল কর্ত্ক নির্ধারিত পরীক্ষায় একজন প্রার্থিকে পাশ করতে হবে অর্থাৎ বিধি ৬০, ৬০ক, ৬০খ অনুযায়ী একজন প্রার্থিকে Enrollment পরীক্ষায় পাশ করতে হবে। যদি কেউ MCQ, Written and Viva পরীক্ষায় পাশ করতে পারে তবেই তার নাম বার কাউইন্সিল Article 20 অনুযায়ী গেজেটে নোটিশ করতে পারবে।
কিন্তু বিগত ৩১.১০.২০১৯ এর যে গেজেট প্রকাশ করা হয় তাতে দেখা যায় বাংলাদেশ বার কাউন্সিল Article 21(1)(b) এর যে যোগ্যতার কথা বলা হয়েছে তা পরিমাপ করে Article 30(3) অনুযায়ী সিদ্ধান্ত গ্রহন করে Mr. Mohammad Zumman Siddique কে High Court এ Practice করার Permission দিয়েছে।

কিন্তু বাংলাদেশ বার কাউন্সিল High Court Division এ সরাসরি Practice Permission দিতে পারে কিনা কিংবা কিভাবে একজন Advocate বা ব্যক্তিকে কে বাংলাদেশ এর High Court এ Practice করার permission দিতে পারে?

তাহলে এবার Article 21 এ বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের যে ক্ষমতা আছে তাতে কি আছে দেখি।

Article 21 বলা আছেঃ-

(1) No advocate, other then an advocate permitted to practise before the High Court immediately before the commence-ment of this order, shall be permitted to practise before the High Court unless-
(a) he has practised as an advocate before subordinate courts in Bangladesh for a period of two years;
(b) he is a law graduate and has practised as an advocate before any Court outside Bangladesh notified by the Government in the official Gazette;
c) he has, for reason of his legal training or experience been exempted by the Bar Council from the foregoing requirements of this clause on the basis of the prescribed criteria.
(2) Permission to practise before the High Court shall be given in the form prescribed by the Bar Council on proof that the fee prescribed under Article 22 has been paid and that the relevant conditions laid down in clause (1) are duly satisfied.

দেখুন এই Article টা শুরু হয়েছে No advocate শব্দটা দিয়ে। অর্থাৎ শুধুমাত্র কোন Advocate যদি (১) বাংলাদেশের Subordinate Court এ ২ বছর practice করেন, (২) কিংবা কোন Advocate যদি বাংলাদেশের বাইরে কোন দেশের High Court এ Practice করে থাকেন এবং তা বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক গেজেটে প্রকাশ করা হয়ে থাকে বা কোন Advocate এর বিশেষ কোন Training বা Experience এর কারনে তিনি বাংলাদেশ বার কাউন্সিল থেকে বিশেষ Exemption নিয়েছেন এমন কোন Advocate.

তাহলে বিষয়টি পরিষ্কার যে Advocate ছাড়া কোন ব্যাক্তিকে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল কোনরূপভাবে সরাসরি এভাবে High Court practice Permission দিতে পারে না।

একটা বিষয় পরিষ্কার করে বোঝা উচিত High Court practice Permission এবং Enrollment as an Advocate একই বিষয় না।

বাংলাদেশ বার কাউন্সিল ৩১ তারিখের গেজেটের মাধ্যমে দুটো ভুল করেছেন বলে মনে হয়।

১) Article 20 এ একজন ব্যাক্তিকে কোন পদ্ধতি বা নিয়ম মানা ছাড়ায় Advocate হিসাবে Admit করেছেন।

২) ভুলভাবে একজন ব্যাক্তির জন্য যিনি Advocate নন তার জন্য Article 21(1)(b) ব্যবহার করেছেন।

এসব কারনের প্রশ্ন জাগে যে, Mr. Mohammad Zumman Siddique কি এই গেজেটের কারনে District বারে Practice করতে পারবে কারন গেজেটে Place where Practicing বলা আছে।

Supreme Court Bar Association কি তাকে Membership দেবে? Supreme Court Bar Association যদি তাকে membership না দেয় তবে কি সে Vokalotnama sign করতে পারবে? সেকি শুধু কোর্টে শুনানি করবে?

বুঝতে পারছিনা বিষয়গুলো।

শুনেছি এই গেজেট কে হাইকোর্টে চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে। এরই মাঝে দেশের বিভিন্ন বারে এটা নিয়ে অনেক সমালোচনা হচ্ছে। অন্যদিকে ৭০ হাজার শিক্ষানবীশ Enrollment পরীক্ষার জন্য অনশন করছেন। আবার এরই মাঝে একদল শিক্ষানবিশ আইনজীবী যারা ইংল্যান্ডে Bar-At-Law করেছেন তারা সরাসরি বাংলাদেশে Advocate বা High Court এ Practice করার permission চাচ্ছেন।

আমার ভাই এক কথা আগে বাংলাদেশে Advocate হন এবং পরে High Court Practice Permission নেন। শুধু শুধু আইন পেশাটাকে এমন জায়গায় নামিয়ে আনবেন না যার জন্য বাকী ৭০ হাজার আইনজীবীর অপমান হয়।

মোকাররামুছ সাকলান, আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রীমকোর্ট

About ডেস্ক রিপোর্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.