রবিবার , ১৯ জানুয়ারি ২০২০
সদ্যপ্রাপ্ত
একজন উত্তরাধিকারী তার সম্পত্তির অংশ উদ্ধারের মামলা দায়েরের কোন সময়সীমা আছে কি?

একজন উত্তরাধিকারী তার সম্পত্তির অংশ উদ্ধারের মামলা দায়েরের কোন সময়সীমা আছে কি?

December 8, 2019
         একজন উত্তরাধিকারী তার সম্পত্তির অংশ উদ্ধারের মামলা দায়েরের সময়সীমা: 

কোন সম্পত্তি দখল প্রাপ্তির জন্য মামলা দায়ের করিবার ব্যাপারে আইনে যেই মেয়াদ নির্ধারিত করিয়া দেওয়া হইয়াছে, তাহা উত্তীর্ণ হইবার পর সেই সম্পত্তিতে বাদীর অধিকার বিলুপ্ত হইয়া যাইবে। বিরুদ্ধ-দখলের মাধ্যমে একটা সম্পত্তির বৈধ স্বত্ব অর্জিত হইতে পারে।

বিরুদ্ধ দখলের উপাদানগুলি হইল :
১. বাদীর বৈধ স্বত্ব ও অধিকারের উপর ‘বিরুদ্ধ-দখল প্রতিষ্ঠিত হইতে হইবে।
২. বাদীর সম্পত্তিটি অবশ্যই বিবাদীর দখলে থাকিতে হইবে।
৩. জবর-দখলজনিত কারণে বে-দখল সংঘটিত হইতে হইবে। বেআইনিভাবে দখল বা জবর-দখল সংঘটিত না হইবে, ‘বিরুদ্ধ দখল প্রতিষ্ঠিত হইবে না।
৪. বিবাদীর জবর-দখল অবশ্য বাদীর প্রতিকূলে থাকিতে হইবে।
৫. জবর-দখল হইবার সময় হইতে বারো বছরের মধ্যে বাদীকে অবশ্যই দখল পুনরুদ্ধার করিবার জন্য মামলা রুজু করিতে হইবে।
৬. বেদখল হইবার সময় হইতে বারো বছরের মধ্যে ঐ সম্পত্তিতে দখল পুনরুদ্ধারের জন্য মামলা না করিলে বিবাদীর অনুকূলে স্বত্ব অর্জিত হইবে।
৭. বিবাদীকে জবর-দখল পূর্বক সম্পত্তিতে দখলে রাখিবার চেষ্টায় লিপ্ত থাকিতে হবে।
৮. সম্পত্তির দখল নিরবচ্ছিন্ন, প্রকাশ্যে এবং প্রকৃত মালিকসহ অন্যান্য সকলের বিরুদ্ধে অভিহিত করা হইয়া থাকে।
৯. ‘বিরুদ্ধ দখল অবশ্যই প্রকৃত মালিকের জ্ঞাতসারে থাকিতে হইবে।
১০. বাদীর স্বত্ব অস্বীকারে জবর-দখলকারীকে নিজের দাবিতে জমিতে দখল থাকিতে হইবে।
১১. আইনসম্মতভাবে প্রথম হইতে বৈধ-দখল আরম্ভ হইলে, পরে কোনো অবস্থাতেই বিরুদ্ধ দখলের দাবি উত্থাপন করা যাইবে না।
১২. বিরুদ্ধ-দখলের কারণে, বিবাদীর স্বত্বের উদ্ভব হইবে এবং বাদীর স্বত্ব নিঃশেষ হইবে।

তামাদি আইনের দখল উদ্ধরের জন্য তামাদির মেয়াদ প্রথম তফসিলে নির্ধারিত সময় পার হইয়া গেলে ঐ সম্পত্তির উপর দাবিকারীর স্বত্ব লোপ পায়। কোনো ব্যক্তি যদি অন্যের সম্পত্তি প্রকাশ্যভাবে মালিকের গোচরে ১২ বছরের ঊর্ধ্বকাল দখল করিয়া থাকে, তবে সেইক্ষেত্রে জবরদখলকারীর স্বত্ব পাকা হয় এবং মালিকের স্বত্ব নষ্ট হয়।

About Shariful Islam

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.