বুধবার , ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত

নাশকতার মামলায় টুকু তিন দিনের রিমান্ডে

জুন ২১, ২০১৮

বিডি ল নিউজঃ জাতীয়তাবাদী যুবদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রাজধানীর শাহবাগ থানার নাশকতার একটি মামলায় এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম প্রনব কুমার হুই শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে ১২ জুন এ মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা। শুনানির জন্য আদালত আজ বুধবার দিন ধার্য করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ১১ জুন উত্তরা বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তারের করে ডিবি পুলিশ। পরেরদিন তাকে আদালতে হাজির করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা দক্ষিণ রমনা জোনাল টিমের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম খান আসামিকে সাত দিন হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি চেয়ে আদালতে আবেদন করেন। ওইদিন মামলার মূল নথি না থাকায় আজ শুনানির জন্য দিন ধার্য করে কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, মামলার এজহারভুক্ত ২১ নম্বর আসামি টুকু। গত ৬/০৩/২০১৮ ইং তারিখে বেলা ১২টায় বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত কারামুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবে মানববন্ধন শেষে প্রেস ক্লাবে থেকে পূর্ব পাশের গেইট দিয়ে মিছিল সহকারে বের হওয়ার সময় বিনা উসকানিতে কর্তব্যরত পুলিশের সঙ্গে তর্কে লিপ্ত হয়। পুলিশ ওই আসামি ও তাদের সহযোগী অন্য নেতাকর্মীদেরও প্রকাশ্যে রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে মিছিল সহকারে না যাওয়ার অনুরোধ করলেও ওই আসামি অনুরোধ উপেক্ষা করিয়া সচিবালয় লিংক রোডের ৫ নম্বর গেইটের সামনে এসে রাস্তায় গাড়ি চলাচল বন্ধ করে মিছিল করিতে থাকে।

আবেদনে বলা হয়, পুলিশ রাস্তা ছেড়ে দিতে অনুরোধ করলে মিছিলকারীরা পুলিশের ওপর উত্তেজিত হয়ে পুলিশের কর্তব্যকাজে বাধা দেওয়াসহ হত্যার উদ্দেশ্যে পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। তাদের নিক্ষিপ্ত ইটপাটকেলের আঘাতে রাস্তায় চলাচলরত গাড়িসহ সচিবালয় লিংক রোড ৫ নম্বর গেইটের রিসিপশন বিল্ডিংয়ের গ্লাস ভেঙে প্রায় চার লাখ টাকার ক্ষতি হয়। আবেদনে আরো বলা হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। তার সঙ্গে জড়িত অন্য আসামিদের নাম ও ঠিকানা প্রকাশে তিনি সুকৌশলে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে প্রকৃত রহস্য জানার জন্য তাকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*