সোমবার , ২০ আগস্ট ২০১৮
সদ্যপ্রাপ্ত

ঘোষণামূলক মামলা ও ডিক্রী সংক্রান্ত বিধান

মে ১৮, ২০১৮

আবদুল বাতেন, আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট ও গাজীপুর জেলা আদালত

সুনির্দিষ্ট প্রতিকার আইনের অধিনে সুনির্দিষ্ট প্রতিকার দুই ধরনের হয়ে থাকে ।যথা
( ক) প্রতিকামুলক এবং
(খ) রক্ষামুলক ।
প্রতিকার সম্পর্কীয় অধিকার সমুহের মধ্যে অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অধিকার হল বেদখল হওয়া স্থাবর সম্পত্তির দখল পুনরুদ্ধার এর প্রতিকার ।

ঘোষণামূলক মামলা:
সুনিদ্রিসটো প্রতিকার আইনের ৪২ ধারা সমুহে
ঘোষণামূলক মামলার বিধান করা হয়েছে ।৪২ ধারাইয় দায়েরকৃত ঘোষণামূলক মামলায় যে ডিক্রী প্রদান করা হয়তাকে ঘোষণামূলক ডিক্রী বলে ।

ঘোষণামুলক ডিক্রী পাওয়ার শর্তাবলী ;
(১) বাদীর কোন আইনগত পরিচয় বা সম্পত্তিতে স্বত্ব থাকতে হবে ।
(২) স্বত্বের অধিকার আইন থেকে সৃষ্টি হতে
হবে । চুক্তি থেকে সৃষ্টি
হলে চল্বেনা ।
(৩) বিবাদী এই আইনগত সম্পত্তিতে অধিকার করবে
বা অস্বীকার করার আগ্রহ প্রকাশ করবে ।
(৪) যে ক্ষেত্রে বাদী শুধু মাত্র তার সত্তের
ঘোষণা ছাড়া অন্য কোন
প্রকার চাইতে পারতেন বাদীকে তা চাইতে হবে ।

ঘোষণামূলক ডিক্রী এবং জারী মামলা:
;যদি ঘোষণামুলক ডিক্রী হয় সে ক্ষেত্রে জারী মামলার প্রয়োজন পরেনা ।
যে সকল ঘোষণামুলক ডিক্রী শুধুমাত্র পক্ষগনের অধিকার ঘোষণা করে তা নিজে নিজেই সম্পাদনযোগ্য এবং জারী মামালার প্রয়োজন পরেনা ।
অন্যদিকে যদি আনুষঙ্গিক প্রতিকার চাওয়া হয় এবং উহার উপর ডিক্রী হয় তাহলে আনুষঙ্গিক প্রতিকারের বিরুদ্ধে জারী মামলা করে বাস্তবায়ন করা যায় ।যেমন সত্তের চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার মামলায় বাদীর তর্কিত
জমিতে সত্ত্ব আছে এই মর্মে ডিক্রী হলে দখল ফেরত পাবার জন্য ( যদি বিবাদী দখল ফেরত না দেয় ) ডিক্রীজারী মামলা করতে হবে ।

৪২ ধারার ‘ঘোষনামুলক মোকদ্দমা’ আদালতের স্বেচ্ছাধীন ক্ষমতা।

কোর্ট ফিঃ ফিক্সড (৩০০ টাকা)

ঘোষনামুলক মোকদ্দমার তামাদি কাল ৬ বছর।

ঘোষনামুলক মোকদ্দমা ২ টি ক্ষেত্রে করা হয়-
১. স্বত্ব ও মর্যাদার অধিকার এর ক্ষেত্রে;
২. পদের অধিকারের ক্ষেত্রে;

এ মোকদ্দমায় ডিক্রিজারির প্রয়োজন নেই।

৮ ধারার ‘স্থাবর সম্পত্তির স্বত্ব অর্জনের মামলা’ করতে হলে ৪২ ধারা অনুসরণ করতে হয়।

৪২ ধারার ‘ঘোষনামুলক মোকদ্দমায়’ ৮ ধারার কোন প্রয়োজন নেই।

৪২ ধারার ‘ঘোষনামুলক মোকদ্দমায় ‘ আনুসঙ্গিক প্রতিকার চাওয়া বাধ্যতামূলক যদি তা চাওয়া না হয় তবে আদালত কোন প্রতিকারই মুঞ্জুর করবেন না

ঘোষনামুলক মোকদ্দমা কে বিজ্ঞাপনী মোকদ্দমাও বলা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*