Home » দৈনন্দিন জীবনে আইন » পরিবর্তিত রূপে আয়কর ২০২০-২১

পরিবর্তিত রূপে আয়কর ২০২০-২১

সাম্প্রতিক বাজেটে আয়করের বিভিন্ন পরিবর্তন নিয়ে যথারীতি বিভিন্ন মহলে চলছে নানান গুঞ্জন। চলুন দেখে নেয়া যাক এবারের বাজেটে আয়করে কী কী পরিবর্তন এসেছে।

১। করহার হ্রাস
ক। ব্যক্তি শ্রেণীর করদাতাদের করহার হ্রাস এবং ব্যয় সক্ষমতা বৃদ্ধিতে ব্যক্তি করদাতাদের করমুক্ত আয়সীমা বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে।
খ। ব্যক্তি করদাতাদের করমুক্ত আয়সীমা ২ লক্ষ ৫০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৩ লক্ষ টাকায় উন্নীত করার প্রস্তাব করা হয়েছে।
গ। ব্যক্তি করদাতাদের জন্য প্রযোজ্য সর্বনিম্ন করহার ১০% হতে হ্রাস করে ৫% করার প্রস্তাব করা হয়েছে।
ঘ। ব্যক্তি করদাতাদের জন্য প্রযোজ্য সর্বোচ্চ করহার ৩০% হতে হ্রাস করে ২৫% করার প্রস্তাব করা হয়েছে।
এছাড়াও আরও কিছু পরিবর্তন সমূহ প্রস্তাব করা হয়েছে।

ব্যক্তি শ্রেণী করদাতার বিদ্যমান ও প্রস্তাবিত করহার ও করধাপঃ
বিদ্যমান করধাপে ২.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিদ্যমান করহার ০, পরবর্তী ৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ১০%, পরবর্তী ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ১৫%, পরবর্তী ৬ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ২০%, পরবর্তী ৩০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ২৫%, অবশিষ্ট টাকার ৩০%। অপরদিকে প্রস্তাবিত করধাপ ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত প্রস্তাবিত করহার ০, পরবর্তী ১ লক্ষ টাকার ৫%, পরবর্তী ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ১০%, পরবর্তী ৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ১৫%, পরবর্তী ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ২০%, অবশিষ্ট টাকার ২৫%।

করমুক্ত আয়ের সীমাঃ
বিদ্যমান (২০১৯-২০২০) সাধারণ করদাতার ক্ষেত্রে ২ লক্ষ ৫০ হাজার, মহিলা ও ৬৫ বছর বা তদুর্ধ্ব ব্যক্তির জন্যে ৩ লক্ষ, প্রতিবন্ধী ব্যক্তির জন্যে ৪ লক্ষ, গেজেটভুক্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ক্ষেত্রে ৪ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা। অপরদিকে, প্রস্তাবিত (২০২০-২০২১) সাধারণ করদাতার জন্যে ৩ লক্ষ, মহিলা ও ৬৫ বছর বা তদুর্ধ্ব ব্যক্তির জন্যে ৩ লক্ষ ৫০ হাজার, প্রতিবন্ধী ব্যক্তির জন্যে ৪ লক্ষ ৫০ হাজার, গেজেটভুক্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ক্ষেত্রে ৪ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা।

কোন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির পিতামাতা বা আইনানুগ অভিভাবকের ক্ষেত্রে এরুপ প্রত্যেক সন্তান/পোষ্যের জন্য করমুক্ত আয়সীমা ৫০ হাজার টাকা বেশী।

২। কোম্পানি করহার হ্রাস
ক। পাবলিকলি ট্রেডেড নয় এরুপ কোম্পানির করহার ৩৫% হতে কমিয়ে ৩২.৫% করার প্রস্তাব করা হয়েছে।
খ। অন্যান্য করদাতাদের জন্য প্রযোজ্য করহার ও সারচার্জ অপরিবর্তিত রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে।
ন্যুনতম করের পরিমাণ কোনভাবেই নিম্নরূপে বর্ণিত হারের কম হবেনাঃ
ঢাকা উঃ দঃ সিটি কর্পোঃ ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোঃ এলাকার করদাতার ক্ষেত্রে ন্যুনতম করহার ৫০০০/=
অন্যান্য সিটি কর্পোঃ এলাকার করদাতার ক্ষেত্রে ৪০০০/=
সিটি কর্পোঃ এর বাইরের এলাকার করদাতার ক্ষেত্রে ৩০০০/=

কোন করদাতা যদি স্বল্প উন্নত এলাকা বা সবচেয়ে কম উন্নত এলাকায় অবস্থিত ক্ষুদ্র বা কুটির শিল্পের মালিক হন এবং উক্ত কুটির শিল্পের দ্রব্যাদি উৎপাদনে নিয়োজিত থাকেন, তাহলে তিনি উক্ত ক্ষুদ্র বা কুটির শিল্পের আয়ের উপর নিম্ন বর্ণিত হারে আয়কর রেয়াত লাভ করবেন,

বিবরণঃ
১। যেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বৎসরের উৎপাদনের পরিমাণ পূর্ববর্তী বৎসরের উৎপাদনের পরিমাণের তুলনায় ১৫% এর অধিক কিন্তু ২৫% এর অধিক নয় সেক্ষেত্রে উক্ত আয়ের উপর প্রদেয় আয়করের ৫% রেয়াত হার।
২। যেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বৎসরের উৎপাদনের পরিমাণ পূর্ববর্তী বৎসরের উৎপাদনের পরিমাণের তুলনায় ২৫% এর অধিক সেক্ষেত্রে উক্ত আয়ের উপর প্রদেয় আয়করের ১০% রেয়াত হার।

সবচেয়ে কম উন্নত বা স্বল্প উন্নত এলাকা অর্থ Income Tax Ordinance 1984 (Ordinance No. XXXVI of 1984) এর Section 45 এর Sub-Section 2A এর Clause (B).

সারচার্জের হার
ব্যক্তি করদাতার ক্ষেত্রে আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪ এর ধারা ৮০ অনুযায়ী পরিসম্পদ, দায় ও খরচের বিবরণীতে প্রদর্শিত নিম্নবর্ণিত সম্পদের ভিত্তিতে আয়কর প্রযোজ্য এরূপ আয়ের উপর প্রযোজ্য আয়করের উপর নিম্নহারে সারচার্জ প্রদেয় হবে;
নীট পরিসম্পদের মূল্যমান তিন কোটি পর্যন্ত সারচার্জের হার ০ এবং ন্যুনতম সারচার্জ ০। নীট পরিসম্পদের মূল্যমান তিন কোটির অধিক কিন্তু পাঁচ কোটির অধিক নয় বা নিজ নামে একাধিক মোটর গাড়ি, কোন সিটি কর্পোঃ এলাকায় মোট ৮০০০ বর্গফুটের অধিক আয়তনের গৃহ সম্পত্তি সারচার্জের হার ১০% ন্যুনতম সারচার্জ ৩০০০/=। নীট পরিসম্পদের মূল্যমান পাঁচ কোটির অধিক কিন্তু দশ কোটির অধিক নয় সারচার্জের হার ১৫% ন্যুনতম সারচার্জ ৩০০০/=। নীট পরিসম্পদের মূল্যমান দশ কোটির অধিক কিন্তু পনের কোটির অধিক নয় সারচার্জের হার ২০% ন্যুনতম সারচার্জ ৫০০০/=। নীট পরিসম্পদের মূল্যমান পনের কোটির অধিক কিন্তু বিশ কোটির অধিক নয় সারচার্জের হার ২৫% ন্যুনতম সারচার্জ ৫০০০/=। নীট পরিসম্পদের মূল্যমান বিশ কোটির অধিক সারচার্জের হার ৩০% ন্যুনতম সারচার্জ ৫০০০/=

তবে শর্ত থাকে যে, যেসব করদাতার নীট সম্পদের মূল্যমান ৫০ কোতি টাকা বা তদুর্ধ্বে সেসব করদাতার সারচার্জের পরিমাণ হবে উক্ত করদাতার নীট পরিসম্পদের ০.১% অথবা আয়কর প্রযোজ্য এরূপ আয়ের উপর প্রযোজ্য আয়করের উপর ৩০% হারে প্রদেয় সারচার্জ, এই দুটির মধ্যে যেটি বেশী।

কোম্পানি, ব্যক্তি-সংঘ, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এবং সে সকল করদাতা যাহাদের ক্ষেত্রে আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪ অনুযায়ী সর্বোচ্চ হারে আয়কর আরোপিত হয়-
যে কোম্পানির রেজিস্ট্রিকৃত অফিস বাংলাদেশে অবস্থিত সেই কোম্পানি হতে লব্ধ ডিভিডেন্ড আয় ব্যতিরেকে অন্য সর্ব প্রকার আয়ের উপর-
ক। দফা (খ) (গ) (ঘ) ও (ঙ) তে বর্ণিত কোম্পানি সমূহের ক্ষেত্র ব্যতীত-
(অ) এইরূপ প্রত্যেকটি কোম্পানির ক্ষেত্রে উক্ত আয়ের ২৫% :
যা পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানি-
তবে শর্ত থাকে যে, যদি এরূপ কোম্পানি যা পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানি নয়, এর পরিশোধিত মূলধনের ন্যুনতম ২০% শেয়ার Initial Public Offering (IPO) এর মাধ্যমে হস্তান্তর করে, তাহলে এরূপ কোম্পানি উক্ত হস্তান্তর সংশ্লিষ্ট বৎসরে প্রযোজ্য আয়করের উপর ১০% হারে আয়কর রেয়াত লাভ করবে।

(আ) এরূপ প্রত্যেকটি কোম্পানির ক্ষেত্রে যা পাবলিকলি ট্রেডেড
কোম্পানি নয় এবং স্থানীয় কর্তৃপক্ষ সহ আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪
এর ধারা ২ এর ক্লজ (২০) এর সাব-ক্লজ(a), (b), (bb), (bbb)
ও (c) এর আওতাধীন অন্যান্য কোম্পানির ক্ষেত্রে- উক্ত আয়ের ৩২.৫%

(খ) ব্যাংক, বীমা, আর্থিক প্রতিষ্ঠান সমূহ (মার্চেন্ট ব্যাংক ব্যতীত)
(অ) এরূপ প্রত্যেকটি কোম্পানির ক্ষেত্রে যা পাবলিকলি
ট্রেডেড কোম্পানি- উক্ত আয়ের ৩৭.৫%
(আ) এরূপ প্রত্যেকটি কোম্পানির ক্ষেত্রে যা পাবলিকলি
ট্রেডেড কোম্পানি নয়- উক্ত আয়ের ৪০%

(গ) মার্চেন্ট ব্যাংকের ক্ষেত্রে- উক্ত আয়ের ৩৭.৫%
(ঘ) সিগারেট, বিড়ি, জর্দা, গুলসহ সকল প্রকার তামাকজাত
পণ্য প্রস্তুতকারক কোম্পানির ক্ষেত্রে- উক্ত আয়ের ৪৫%
(ঙ) মোবাইল ফোন অপারেটর কোম্পানির ক্ষেত্রে- উক্ত আয়ের ৪৫%

তবে শর্ত থাকে যে, মোবাইল ফোন অপারেটর কোম্পানি যদি এর পরিশোধিত মূলধনের ন্যুনতম ১০% শেয়ার যার মধ্যে Pre Initial Public Offering Placement ৫% এর বেশী থাকতে পারবেনা, স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে হস্তান্তর করত; পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানিতে রূপান্তরিত হয় সেক্ষেত্রে করহার হবে ৪০%।

আরও শর্ত থাকে যে, যদি এরূপ কোম্পানি এর পরিশোধিত মূলধনের ন্যুনতম ২০% (IPO) এর মাধ্যমে হস্তান্তর করে তাহলে এরূপ কোম্পানি উক্ত হস্তান্তর সংশ্লিষ্ট বৎসরে প্রযোজ্য আয়করের উপর ১০% হারে আয়কর রেয়াত লাভ করবে।

লেখকঃ মসনদ বিন তৈফুর (নিলয় ভূঁইয়া)
সদস্যঃ ঢাকা ট্যাক্সেস বার এ্যাসোসিয়েশন
বাংলাদেশ কোম্পানি ল’ প্র্যাক্টিশনার’স সোসাইটি

Share and Enjoy !

0Shares
0 0 0

Check Also

মাস্ককাণ্ডে কেন্দ্রীয় ওষুধাগারের ৬ কর্মকর্তাকে দুদকের তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক: অনিয়ম, দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারসহ নানা অভিযোগে বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ওষুধাগারের (সিএমএসডি) ছয় কর্মকর্তাকে …

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.