বুধবার, ১২ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ || ২৯শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ১লা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি

সিরাজগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সেক্রেটারির সাথে বিডি ল নিউজের আলাপ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
সিরাজগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সেক্রেটারির সাথে বিডি ল নিউজের আলাপ

রাহুল কুমারঃ-

করোনাকালীন পরিস্থিতি,ভার্চুয়াল কোর্ট,টাউট দালাল নির্মূল এবং শিক্ষানবীশদের জট সহ সিরাজগঞ্জ আদালতের সমসাময়িক পরিস্থিতি নিয়ে বিডি ল নিউজের সাথে আলাপ করেণ সিরাজগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি সেক্রেটারি জনাব এ্যাড: আনোয়ার পারভেজ লিমন ।

বিডি ল নিউজঃ করোনা পরিস্থিতির ক্রম অবনতিতে প্রথমবার লকডাউন এর মধ্যে আদালত বন্ধ থাকা অবস্থায় আইন পেশার সঙ্গে জড়িত সকলের (বিশেষ করে আইনজীবীদের) কতটুকু ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়েছিল বলে আপনি মনে করেন?

এ্যাড: আনোয়ার পারভেজ লিমনঃ করোনা পরিস্থিতিতে আইনজীবীদের ব্যপক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়েছে, যার আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ সংখ্যায় নির্ধারণ করা অসম্ভব, বিশেষ করে নব্য আইনজীবী ও কিছু কিছু আইনজীবীদের দুর্বিসহ অবস্থা গেছে।

বিডি ল নিউজঃ করোনাকালীন লকডাউনের ক্রমবর্ধমান মেয়াদকে সামনে রেখে বিকল্প পদ্ধতি হিসেবে ভার্চুয়াল কোর্ট পদ্ধতি কতটুকু কার্যকর ছিল বলে আপনি মনে করেন?

এ্যাড: আনোয়ার পারভেজ লিমনঃ ভার্চুয়াল কোর্ট পদ্ধতির বিপক্ষে ছিলাম আমি, সমগ্র বাংলাদেশের মধ্যে সম্ভবত সিরাজগঞ্জ আদালতেই প্রথম ভার্চুয়াল কোর্ট বর্জনের ডাক ওঠে। আমি প্রথম থেকেই এর বিপক্ষে ছিলাম।

বিডি ল নিউজঃ আদালত থেকে টাউট, বাটপার, চিটার নির্মূল সংক্রান্ত বার কাউন্সিলের নির্দেশনা প্রদানের পর সিরাজগঞ্জ জেলা বারের উদ্যোগ ও কার্যকারিতা কতটুকু হয়েছে বলে আপনি মনে করেন?

এ্যাড: আনোয়ার পারভেজ লিমনঃ আদালত চত্তরে এই বিষয়ে দৈনিক মাইকিং সহ জেলা জজ, নির্বাহী ম্যাজিঃ, পুলিশ সুপারের সহায়তায় নির্মূল অভিযান ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়েছে এবং অব্যাহত থাকবে, তাছাড়াও চিহ্নিত কিছু ব্যক্তি যারা টাউট চক্রের সাথে জড়িত তাদের চিনি তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা অব্যাহত আছে।

বিডি ল নিউজঃ সিরাজগঞ্জ আদালত চত্বর এবং সিরাজগঞ্জ বার এসোসিয়েশন এর উন্নয়ন কল্পে গৃহিত কার্যক্রম ও পরিকল্পনা কি?

এ্যাড: আনোয়ার পারভেজ লিমনঃ উন্নয়ন কল্পে গৃহিত পদক্ষেপ অনুযায়ী ৪তলা পর্যন্ত সম্প্রসারন, নব্য আইনজীবীদের জন্য চেয়ার টেবিল দেওয়া হয়েছে, তাদের বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বিডি ল নিউজঃ নতুন আইনজীবীগণ সংখ্যাগড়িষ্ঠই মামলা মোকদ্দমা পাচ্ছে না এর কারন কি হতে পারে বলে আপনি মনে করেন এবং এ থেকে উত্তরায়ণের পথ কি?

এ্যাড: আনোয়ার পারভেজ লিমনঃ আদালত চত্তর দালাল দিয়ে ভরে আছে, ইতিপূর্বে উদ্যোগ নেওয়ার অপর্যপ্ততা ছিল, নতুন আইনজীবীরা আমাকে মাঝে মাঝেই বলে তারা তেমন মামলা পাচ্ছে না, কোন কাজ পাচ্ছে না এদিকে দালালদের কাছে সব মামলা চলে যাচ্ছে। আমরা এদের জন্যই মাইকিং করেছি এদেরকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দ্বারা ধরিয়ে দেব।

বিডি ল নিউজঃ বার কাউন্সিল এনরোলমেন্ট পরিক্ষা গ্রহণে কতৃপক্ষের বিলম্ব এবং করোনা পরিস্থিতির কারনে পরিক্ষা না হওয়ার ফলে এম সি কিউ উত্তির্ন প্রায় ১৩০০০/- শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের ঢাকা প্রেসক্লাব এর সামনে প্রতিবাদ সরূপ ১৩০ দিন তথা ৪ মাসের বেশীদিন যাবৎ অবস্থান কর্মসূচি সহ মুজিবর্ষ উপলক্ষে রিটেন পরিক্ষা মওকুফের দাবী আপনি কতটুকু সমর্থন করেন?

এ্যাড: আনোয়ার পারভেজ লিমনঃ বার কাউন্সিলের উচিৎ বছরে অন্তত একটি পরিক্ষা নেওয়া তাহলেই প্রতিবছর অন্তত ৫০০০ করে আইনজীবী বেরিয়ে আসবে, তাহলেই এত চাপ কিছু কমে যায়। এদের আটকিয়ে রাখছে পরিক্ষা নিচ্ছে না চাপ আরও বাড়ছে।

বিডি ল নিউজঃ একজন আদর্শ আইনজীবীর গুণাবলি আপনার দৃষ্টিতে কেমন হওয়া উচিৎ?

এ্যাড: আনোয়ার পারভেজ লিমনঃ আইনজীবী সে কখনো দালাল নির্ভর হবে না, এগুলো প্রশ্রয় দেবে না। আইন পেশা একটি রাজকীয় পেশা বর্তমান এই ঐতিহ্য রক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না। স্যার স্যার করে মুখে ফেনা তুলে ফেলে। আইন জানতে হবে আইনের যুক্তি প্রদানের মাধ্যমে উপস্থাপনা করতে হবে।

রাহুল কুমার,সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি।

Responses

লেখক পরিচিতি